শনিবার, ২৮ মে ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মুসলিমদের প্রতি বৈষম্যমূলক আইন করেছে ভারত




হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ) তার বার্ষিক প্রতিবেদনে মুসলিমসহ সংখ্যালঘু স¤প্রদায়ের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক নীতি গ্রহণের জন্য ভারতে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন সরকারের সমালোচনা করেছে।
তার বিশ্ব প্রতিবেদন ২০২২-এ এইচআরডব্লিউ বলেছে, ‘এ সরকার কিছু বিজেপি নেতাদের হাতে মুসলমানদের অপমান এবং সহিংসতাকারী বিজেপি সমর্থকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের ব্যর্থতার সাথে, হিন্দু জাতীয়তাবাদী গোষ্ঠীগুলোকে মুসলমানদের এবং সরকারের সমালোচকদের দায়মুক্তির সাথে আক্রমণে উৎসাহিত করেছে’। ভারত সরকার কর্মী, সাংবাদিক, শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারী এবং এমনকি কবিদের ওপর দমন-পীড়ন চালিয়েছে।
এইচআরডব্লিউ বলেছে, অভিনেতা এবং ব্যবসায়ীদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়রানি, বিচার এবং ট্যাক্স অভিযানের ঝুঁকি বেড়েছে। ‘কর্তৃপক্ষ বিদেশী অর্থায়নের নিয়ম বা আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ ব্যবহার করে অধিকার গোষ্ঠীগুলো বন্ধ করে দিয়েছে’- এইচআরডব্লিউ বলেছে।
ভারতীয় অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীর (আইআইওজেকে) সম্পর্কে এইচআরডব্লিউ বলেছে, ‘জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ২০২১ সালের প্রথম নয় মাসে নির্যাতন এবং বিচারবহির্ভ‚ত হত্যার অভিযোগে পুলিশ হেফাজতে ১৪৩টি মৃত্যু এবং ১০৪টি বিচারবহির্ভ‚ত হত্যাকান্ডের অভিযোগ রেকর্ড করেছে’।
এইচআরডব্লিউ বলেছে যে, লিঙ্গগত এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা ক্রমাগত নিপীড়নের মুখোমুখি হওয়ায় পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ ‘বিরোধিতা দমন করার জন্য কঠোর রাষ্ট্রদ্রোহ এবং সন্ত্রাসবিরোধী আইনের’ ব্যবহার প্রসারিত করেছে। ‘২০২১ সালে, পাকিস্তান সরকার মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ এবং ভিন্নমত কমানোর জন্য তার প্রচেষ্টা জোরদার করেছে। সরকারি কর্মকর্তা ও নীতির সমালোচনা করার জন্য কর্তৃপক্ষ সাংবাদিক এবং সুশীল সমাজের অন্যান্য সদস্যদের হয়রানি করেছে এবং মাঝে মাঝে আটক করেছে’।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিরোধী রাজনৈতিক দলের সদস্য ও সমর্থকরাও দমন-পীড়নের শিকার হয়েছেন। ‘মহিলা, ধর্মীয় সংখ্যালঘু, এবং ট্রান্সজেন্ডাররা সহিংসতা, বৈষম্য এবং নিপীড়নের মুখোমুখি হচ্ছে, কর্তৃপক্ষ পর্যাপ্ত সুরক্ষা দিতে বা অপরাধীদের জবাবদিহি করতে ব্যর্থ হয়েছে’ -এতে বলা হয়েছে।
এইচআরডব্লিউ গণতন্ত্রের দুর্বল প্রতিরক্ষা এবং আবহাওয়া সঙ্কট এবং কোভিড-১৯ মহামারি থেকে দারিদ্র্য, বৈষম্য এবং জাতিগত অবিচারের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ব্যর্থতার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং অন্যান্য পশ্চিমা নেতাদের সমালোচনা করেছে।
মানবাধিকারের নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রথ প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘বন্ধুত্বপূর্ণ স্বৈরাচারীদের আলিঙ্গন’ হিসাবে বর্ণনা করেছেন। তার বিপরীতে, বাইডেন তার বিদেশ নীতির কেন্দ্রে মানবাধিকার রাখার অঙ্গীকার নিয়ে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে অফিস গ্রহণ করেছিলেন।
বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হিউম্যান রাইটস ওয়াচের বার্ষিক বিশ্ব প্রতিবেদনে রথ লিখেছেন, ‘কিন্তু তিনি মিসর, ইসরাইলসহ কয়েকটি দেশের ক্রমাগত দমন-পীড়ন সত্তে¡ও অস্ত্র বিক্রি চালিয়ে যাচ্ছেন’। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ এবং সাবেক জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেলের নাম উল্লেখ করে রথ লিখেছেন, ‘অন্যান্য পশ্চিমা নেতারা তাদের গণতন্ত্রের প্রতিরক্ষায় একই রকম দুর্বলতা প্রদর্শন করেছেন’। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: