মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফ্রান্সে মেধাবী শিক্ষার্থী ও গুণিজনকে সংবর্ধনা দিল বিসিএফ




নিজস্ব প্রতিবেদক:

ফ্রান্সে বাংলাদেশ কমিউনিটির এই প্রজন্মের সন্তানেরা মেধা আর শ্রমের মাধ্যমে ফরাসী মূলধারার নানা ক্ষেত্রে নিজেদের অবস্থান ক্রমশঃ দৃঢ় করছে। বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন ফ্রান্স (বিসিএফ) এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘স্টুডেন্টস এন্ড এওয়ার্ড সিরিমনি ২০২৩’ অনুষ্ঠানে সেরকমটিই দেখা গেলো। ফ্রান্সের শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ অন্যান্য সেক্টরে বাংলাদেশী সন্তানেরা সাফল্যের সাথে ফ্রান্সসহ অন্যান্য অভিবাসী সন্তানদের সাথে প্রতিযোগিতা করে পেশাগত সাফল্য লাভ করছে। এদেশে এখন চিকিৎসক, ইঞ্জিনিয়ার, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, আইনজীবি কিম্বা বিশ্বখ্যাত বহুজাতিক কোম্পানীতে বাংলাদেশীদের মুখর পদচারনা। আর এদের সাফল্যের সংবাদ পাওয়া যায় বিসিএফ এর নিয়মিত বাৎসরিক আয়োজন ‘বিসিএফ রিইউনিয়ন এন্ড স্টুডেন্টস এওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে।

শনিবার (২৭ জানুয়ারী ) একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ফ্রান্সে নানা স্তরে পড়াশুনা করা শিক্ষার্থী, আইকনিক ইয়াং স্টার, পেশাগতভাবে সফল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সংবর্ধনা এবং পুরস্কার প্রদান করা হয়।


অনুষ্ঠানে ফ্রান্সে বাংলাদেশ দূতাবাসের দূতালয় প্রধান ওয়ালিদ বিন কাশেম পুরস্কার প্রদান করেন এবং বক্তব্য রাখেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিসিএফ এর প্রেসিডেন্ট এমডি নূর। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন জহিরুল রানা (বাংলা ভাষা) এবং ফারসীনা হোসেন (ফরাসী ভাষা)।

এ বছর বাক, লিসন্স, মাস্টার্স এবং পিএইচডি পর্যায়ে মোট ১৫ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

আরশী বড়ুয়ার ভায়োলিনের অনবদ্য মূর্ছনায় বাংলাদেশ এবং ফ্রান্স এর জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।
অনুষ্ঠানে লাইভ টাইম এচিভমেন্ট পুরস্কার দেয়া হয় প্রফেসর ডাঃ ওয়াহিদুর রহমান। তিনি প্রায় পঞ্চাশ বছর ধরে ফ্রান্সে বসবাস করছেন এবং হৃদরোগ চিকিৎসক হিসেবে ব্যাপক সুখ্যাতি অর্জন করেন।

মানবিক ডাক্তার হিসেবে সম্প্রতি প্রয়াত ইব্রাহীমের চিকিৎসক ডঃ ম্যাথিও জামেলু কে সংবর্ধনা এবং পুরস্কৃত করা হয়৷
কমিউনিটি-বন্ধু প্রয়াত শহীদুল আলম মানিক এবং এইচ এস হায়দারকে (মরণোত্তর) ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

প্রথমবারের মত এবারে ফ্রান্সে বাংলাদেশ কমিউনিটিতে নানা সেক্টরে সফল বিভিন্ন ব্যক্তি, সামাজিক সংগঠন এবং প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়। এর মধ্যে সাংবাদিকতায় মোহাম্মদ আরিফ উল্লাহ(ফ্রান্স টুয়েন্টি ফোর) মোহাম্মদ লুৎফর রহমান বাবু (সময় টিভি), আকাশ হেলাল (আইনজীবী), ইমরান চৌধুরী (আইনজীবী), দিয়ান আশরাফুল(অফিসার, ফরাসী শিক্ষা মন্ত্রণালয়), ডাক্তার লাজিম মিয়া।
কর্মসংস্থান সহায়তায় বিসিএফ এক্সিকিউটিভ মেম্বার ইমরান হোসেন, ফরাসী ভাষা শিক্ষায় ফ্রেন্স উইথ রিফাত, ফ্রান্সের মাটিতে স্থায়ী শহীদমিনার স্থাপনে সফল হওয়ায় বাংলাদেশী কমুউনিটি এসোসিয়েশন তুলুজ, এসোসিয়েশন সেকানো বাংলাদেশ (এএসবি), বাংলাদেশী সংস্কৃতি চর্চা ও প্রসারের জন্য এমদাদুল হক স্বপন ও নজরুল ইসলাম চৌধুরী, প্রফেশনাল সার্ভিস এর ক্ষেত্রে ‘ওফিওরা’ এবং ‘আইছা’, সামাজিক ও রাষ্ট্রীক অধিকার আদায়ে ভূমিকা রাখায় নয়ন এনকে।

অনুষ্ঠানে সিনিয়রদের উত্তরীয় পড়িয়ে দেয়া হয়। এবারের অনুষ্ঠানে মোটিভেশনাল স্পিচ দেন আউয়াল রহমান এবং ফাতেমা-তুজ-জোহরা।

অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক পর্বে গান পরিবেশন করেন সোমা দাস, মৌসুমী চক্রবর্তী, ইমতিয়াজ রনি। বাঁশী বাজিয়ে শোনান নুরুল ইসলাম এবং বিশ্বাস বিনয়। আর নাচ পরিবেশন করেন আদিফা রহমান।

অনুষ্ঠানে বিসিএফ এর নিয়মিত স্পন্সরদের পরিচয় করিয়ে দেন বিসিএফ এর প্রেসিডেন্ট এমডি নূর। তাদেরকে বিসিএফ এর ব্যাজ পরিয়ে দেয়া হয়।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: