বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

করোনাকালে বাংলাদেশ: যা ভাবছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা




বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক:

করোনাকালীন সময়ে পুরো বিশ্বে এক ধরণের হাহাকার বিরাজমান। কিন্তু এই হাহাকারময় সময়েও বাংলাদেশে থেমে নেই বিচার বহির্ভূত হত্যা, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, থেমে নেই অসহায়দের আর্তনাদ। এ সম্পর্কে কী ভাবছে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা? তাদের কয়েকজনের সঙ্গে আলাপ করে জানাচ্ছেন- মাহফুজুর রহমান

রুহেল আহমেদ,পড়ছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে। তিনি যেমনটা বললেন, করোনা ভাইরাস দেখিয়ে দিয়েছে মানুষ কতটা অসহায়! অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও করোনা থেকে মুক্তির জন্য চেষ্টা চালালেও কিছুটা ব্যতিক্রম দৃশ্যও দেখতে পাওয়া গিয়েছে। এক শ্রেণীর শিক্ষিতরা নিজের স্বার্থে এরকম দুর্যোগপূর্ণ সময়েও লুটপাট বজায় রেখেছে। কিছু নামধারী ডাক্তারের কর্মকান্ড ডাক্তারি পেশাকে অপমানিত করেছে। আমাদের এরকম নামধারী শিক্ষিত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে হবে এবং তাদের জন্য যোগ্য জায়গা তাদের দেখিয়ে দিতে হবে।

জিয়াউর রহমান সাজু,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিন্টিং এন্ড পাবলিকেশন স্টাডিজের এই শিক্ষার্থী জানান, করোনার ভাইরাসের আগমনের পর থেকে বাংলাদেশ খুব বেশি সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে দেশের যে এলাকাগুলো প্রবাসী নির্ভর, সেই এলাকার মানুষগুলা খুবই কষ্টের মধ্যে আছে। তারা অনেকেই দেশে আটকা পড়ে আছে। অনেকে দেশের বাইরে থাকলেও কাজ নেই। ক্ষমতার বদৌলতে ভূয়া সার্টিফিকেট প্রদান করে অসংখ্য প্রবাসীদের জীবনটা ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে একটি লোভী ব্যবসায়ী চক্র। এই লোভী ব্যবসায়ীকে প্রতিহত করার মাধ্যমেই আমরা স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ার পথে আরো একধাপ এগিয়ে যাবো।

মোঃ জাকির হোসেন, বাংলা বিভাগ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়: কিছু রাজনীতিবিদ আছে যারা মুখে মুখে বলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করেছে কিন্তু বাস্তবে কাজে মিল পাওয়া যায় না। এসব ব্যক্তিরা সমাজে সুযোগ বুঝে ঝামেলার সৃষ্টি করে। এতে সমাজ থেকে আঙ্গুল উঠে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের উপর। তাই, এই সকল নেতাকে আমাদের পরিহার করতে হবে।

এম. কামিল অাহমেদ, ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। তার মতে, বর্তমান সময়ে আলোচিত ঘটনা হলো মেজর সিনহা হত্যার ঘটনাটি। সবার মনেই দাগ কেটেছি ঘটনাটি। নিজের নিজের জায়গা থেকে সবাই চাচ্ছে যেনো সুষ্ঠ বিচার হয়। এছাড়া, বিচার বহির্ভুত হত্যা বেড়ে গিয়েছে। এতে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্ট হচ্ছে। তাই, এরকম ঘটনার পিছনে কে আছে তাদের খোঁজে বের করাই মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: