শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Sex Cams

রিপাবলিক চত্বরে সংঘর্ষ: কমিউনিটিতে তীব্র ক্ষোভ




শাহ সুহেল আহমদ:

রিপাবলিক চত্বরে সংঘর্ষের ঘটনায় ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় বইছে কমিউনিটিতে। দেশী অতিথিদের অসম্মান আর বিদেশীদের সামনে দেশের সম্মানহানীর ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন অনেকেই।

রোববার প্যারিসের রিপাবলিক চত্বরে বৈশাখী মেলার আয়োজন করে সাংস্কৃতিক সংগঠন স্বরলীপী। করোনার সংকট কাটিয়ে দীর্ঘ দুই বছর পর বাঙালি পাড়ায় এমন অনুষ্ঠান আয়োজন নিয়ে দলমত নির্বিশেষে সবার মাঝেই আলাদা আমেজ বিরাজ করছিল। অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ সংগীত শিল্পী ইমরান ও তার দলের উপস্থিতি মানুষের আগ্রহকে বাড়িয়ে দিয়েছিল আরও বহু গুণ। কিন্তু সামান্য সেলফি কান্ডকে কেন্দ্র করে এতো সুন্দর একটি অনুষ্ঠান পন্ড করে দেয়া অনেকটা হীনমন্যতার মতোই মনে করছেন কমিউনিটির বিশিষ্টজনেরা।

সমালোচনা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও। সমালোচকদের বেশিরভাগই দুষছেন আয়োজকদের। ইমরানের মতো শিল্পীকে মঞ্চে তুলে সে মঞ্চ উন্মুক্ত করে দেয়াই কাল হয়েছে বলে মন্তব্য করছেন অনেকে। সজল আতাউল নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন- ধীরে ধীরে আমরা আধুনিক হচ্ছি, শিক্ষিত হচ্ছি, কিন্তু মানুষ হওয়া থেকে দূরে সরে যাচ্ছি। আয়োজকদের দায়ী করে আসরাফ হোসেন ফেসবুকে লিখেছেন- ‘আপনাদের অবহেলার কারণে আজকে এই অসম্মানজনক ঘটনা ঘটেছে। স্টেজে এতো মানুষ এর আগে কখনও দেখি নি।…’ আকাশ বিশ্বাস রিপন লিখেছেন- ‘রিপাবলিকের মত জায়গায় একটা গানের মঞ্চ বানাইছে। সেটা কি গানের মঞ্চ ছিল নাকি বিজ্ঞাপনের মঞ্চ ছিল জানি না।’ তবে দেশে হঠাৎ শুরু হওয়া বন্যার কথা স্মরণ করে এমএইচ হাসান মাহমুদ লিখেছেন- ‘দেশের মানুষ যখন বন্যার পানিতে ভাসছে, ত্রাণের জন্য হাহাকার করছে, আমরা তখন চাঁদা তুলে রিপাবলিকে গানের আসর জমাচ্ছি।’

তবে আয়োজকদের অন্যতম স্বরলীপীর সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী এসব অভিযোগকে খন্ডন করে বাংলা টেলিগ্রামকে বলেছেন- আমাদের পর্যাপ্ত স্বেচ্ছাসেবী ছিল। কিন্তু সাধারণ মানুষ সেসব স্বেচ্ছাসেবকদের কথা না মেনে ইমরানের সাথে সেলফি তুলতে মঞ্চে উঠে যায়। মঞ্চ থেকেও তাদের বারবার বারণ করা হয়। কিন্তু কেউ কারও কথা না শোনে অশৃংখল পরিবেশ সৃষ্টি করে।

সাংবাদিক মোহাম্মদ নাজমুল কবির আক্ষেপ নিয়ে লিখেছেন- ‘এই যে শিল্পীদের হাসিমাখা মুখটি আমরা দেখছি, এদের মলিনমুখে স্টেজ থেকে নেমে যেতে দেখলাম! প্যারিসের রিপাবলিক চত্তরে দেশী-বিদেশী অসংখ্য মানুষকে সাক্ষী রেখে, চোখের সামনে মারামারি করে একটি অনুষ্ঠানকে পন্ড করে দেয়া হলো! অনেকদিনের শ্রম ঘাম আর অর্থ ব্যয় করে করা একটি অনুষ্ঠানের এই হলো ফলাফল!’

আগামিতে এমন অনুষ্ঠানে আরও সচেতন ও সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন কমিউনিটির বিশিষ্টজনেরা।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: