মঙ্গলবার, ৯ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চরম সঙ্কটে বরিস




ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন সরকার থেকে পদত্যাগ করছেন একের পর এক মন্ত্রী ও সরকার বিষয়ক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

বুধবার বাংলাদেশ সময় স্থানীয় সময় সন্ধ্যা পর্যন্ত মোট ২৭ জন তাদের পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

মঙ্গলবার চ্যান্সেলর ঋসি সুনাক এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ প্রথম পদত্যাগ করেন। এরপর শিক্ষামন্ত্রী উইল কুইন্সসহ বেশ কয়েকজন বুধবার পদত্যাগ করা শুরু করেন।

ধীরে ধীরে পদত্যাগকারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

এদিকে গণমাধ্যম বিবিসি জানায়, বরিস জনসনের মন্ত্রীসভার একটি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে বরিস জনসনের কাছে যাবে। তারা বরিসকে প্রধানমন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানাবেন।

এই প্রতিনিধি দলে বেশ কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রী রয়েছেন।

এর আগে স্কাই নিউজের সাংবাদিক টম লারকিন টুইটে জানান, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বিরুদ্ধে তার নিজ দল কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরা বুধবারই অনাস্থা ভোট আয়োজন করতে পারে।

স্কাই নিউজের এ সাংবাদিক ১৯২২ কমিটির সদস্য। যারা কনজারভেটিভ পার্টির নিয়ম-কানুন নিয়ে কাজ করে।

গত ৬ জুন বরিস জনসনের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট আয়োজন করেন কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরা।

এ দলটির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একবার কোনো অনাস্থা ভোট আয়োজন করলে, আগামী এক বছরের মধ্যে কোনো এরকম ভোট আয়োজন করা যাবে না।

কিন্তু এ নিয়ম পরিবর্তন করা হতে পারে এবং সেটি ব্রিটিশ সময় স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যাতেই।

তিনি আরও জানিয়েছেন, যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় রাতে বরিস জনসনের বিরুদ্ধে আরেকটি অনাস্থা ভোট হতে পারে।

তবে পরিস্থিতি এখন অবস্থায় দাঁড়িয়েছে যে কোনো সময় নিজেই পদত্যাগের ঘোষণা দিতে পারেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

সূত্র: বিবিসি।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: