বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্যারিসে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিজয় দিবসের ৫১তম বার্ষিকী উদযাপন





নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ দূতাবাস প্যারিসের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো মহান বিজয় দিবসের ৫১-তম বার্ষিকী। এদিন সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রবাসী বাংলাদেশী, সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানের নেতাকর্মীবৃন্দ, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গসহ দূতাবাসের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দের অংশগ্রহণে দিবসের প্রারম্ভে দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় সংগীত সহযোগে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।


মূল অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তি সংগ্রামের সকল শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় এবং পবিত্র ধর্মগ্রন্থসমূহ থেকে পাঠ করা হয়। এরপর, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়। আলোচনার শুরুতে ফ্রান্সে বসবাসরত তিন জন বীর মুক্তিযোদ্ধা তাঁদের যুদ্ধকালীন ত্যাগ, তিতিক্ষা ও সংগ্রামের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন।

রাষ্ট্রদূত তালহা তাঁর বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় ও বাংলাদেশের মানুষের আর্থ-সামাজিক মুক্তিতে জাতির পিতার সংগ্রাম এবং ত্যাগের কথা গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি এসময় ১৯৭১ সালের মুক্তি সংগ্রামে পাকিস্তানি দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা সকল শহীদ মুক্তিযোদ্ধার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতাবিরোধী চক্রের হাতে মর্মান্তিকভাবে শহীদ হওয়া বঙ্গবন্ধু পরিবারের সকল সদস্যের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

বিগত এক দশকের অধিক সময়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের মাধ্যমে সৃষ্ট উন্নয়নের ধারা বর্ণনা করতে গিয়ে রাষ্ট্রদূত আরও বলেন যে দেশ আজ বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে। এজন্য তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-র দূরদর্শী নেতৃত্বের ভূয়ষী প্রশংসা করেন। রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যের পূর্বে সরকারের আইসিটি ডিভিশন কর্তৃক প্রেরিত ডিজিটাল বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের উন্নয়ন বিষয়ক একটি প্রামান্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এরপর, উপস্থিত সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের ব্যাক্তিবর্গ দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য বিষয়ে আলোচনা করেন।

গত ১৩ ডিসেম্বর ২০২২ সরকারের জারিকৃত একটি প্রজ্ঞাপনের ফলে ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত সকল প্রবাসীদের পাসপোর্ট সংশোধন সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের পরিপ্রেক্ষিতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক তরুণ প্রবাসী এবছর দূতাবাসের আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন। নবীন-প্রবীণ প্রবাসীদের সরব ও স্বতঃস্ফুর্ত উপস্থিতি এবছর মহান বিজয় দিবসের উদযাপনে ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে। সকল পর্যায়ের প্রবাসীগণ দূতাবাসের বিভিন্ন সেবা প্রদানে দায়িত্বশীল ভূমিকার প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূতকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান এবং পাসপোর্ট সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এসময় রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সসহ বিশ্বের বিভিন্নদেশে অবস্থানরত দেশস্বাধীনতা বিরোধী চক্রের অপপ্রচারেরবিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা পালনের জন্য সকল প্রবাসীদের নিকটআহবান জানান এবং বৈধ পথে রেমিটেন্স প্রেরণের জন্য সকলকেউদ্বুদ্ধ করেন

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: