বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াইয়ে বাংলাদেশ




স্পোটর্স রিপোর্টার,
629
ভুটানের সঙ্গে শুরুটা ভাল হয়েছে বাংলাদেশের। মান্নাফ রাব্বী ও রোহিত সরকারের গোলে জয়ও এসেছে সহজে। এতে সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশের। এরপরও শিষ্যদের পারফরম্যান্স মনঃপূত হয়নি কোচ সাইফুল বারী টিটুর। তার সঙ্গে যোগ হয়েছে উচ্চতা। নেপাল ম্যাচের আগেও উচ্চতা বাংলাদেশের বড় প্রতিপক্ষ হিসেবে দেখছেন টিটু। এ সমস্যাকে পাশ কাটিয়ে স্বাগতিক নেপালকে হারাতে চায় বাংলাদেশ। নেপালকে হারাতে পারলেই ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হবে বাংলাদেশ। ড্র করলে গ্রুপ সেরার মুকুট উঠবে স্বাগতিকদের মাথায়। কেননা ভুটানকে বাংলাদেশ ২-০ গোলে হারালে ভুটানের জালে তিন গোল দিয়েছিল স্বাগতিক দলটি। আজ বাংলাদেশ সময় বিকাল চারটায় নেপালের আনফা ফুটবল একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হবে এ ম্যাচ।
ভুটানের বিপক্ষে জয় পেলেও বাংলাদেশের খেলায় সন্তুষ্ট ছিলেন না কোচ সাইফুল বারী টিটু। তার কারণ ছিল অতিমাত্রায় সেলফিশ ফুটবল খেলা। ওই ম্যাচে ইব্রাহিম, রোহিত থেকে শুরু করে মান্নাফ রাব্বী পর্যন্ত প্রত্যেকেই নিজে গোল করতে চেয়েছেন। যার কারণে মাত্র ২ গোলে জিতেছে বাংলাদেশ। নেপালের বিপক্ষে এমনটা হলে জেতা কষ্টকর হবে বলে মনে করেন টিটু। নেপালের জাতীয় দলের ফরোয়ার্ড বিমল ঘারতি মাগারকে ভয়ঙ্কর উল্লেখ করে নেপাল থেকে টিটু জানান, ও খুব ভালমানের ফুটবলার। ওর জন্য ম্যাচে আমার আলাদা পরিকল্পনা থাকবে।’ মাঠে আমার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে জিতেই মাঠ ছাড়বে বাংলাদেশ- যোগ করেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের এ কোচ। সেমিফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে কাকে চাইছেন এমন প্রশ্নের জবাবে টিটু বলেন, ভারত এখানে তাদের ‘বি’ দল পাঠিয়েছে। তারাই গতকাল আফগানিস্তানকে ২-০ গোলে হারিয়েছে। তার মানে ‘বি’ দল হলেও ভারত শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। মালদ্বীপও প্রায় একই রকম। এ কারণে প্রতিপক্ষ নিয়ে আমি ভাবছি না। যারাই আসুক আমরা ভাল ফুটবল খেলেই ফাইনালে উঠতে চাই। যদিও ওই ভাবনাটা আমি ভাববো নেপাল ম্যাচের পর।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: