সোমবার, ২৭ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রমজানের চিরচেনা রূপ নেই কোথাও




মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম :

করোনাভাইরাসের কারণে সিলেট শহরের রেষ্টুরেন্ট, সড়কের ধারে এবং মোড়গুলোতে ইফতার সামগ্রী বিক্রি বন্ধ রয়েছে । কোথাও নেই ইফতার কেনা-বেচার ধুম। অন্য বারের মতো নানা পদের পসরা সাজানো খাবার নেই। বিক্রেতাদের হাঁকডাক নেই, ক্রেতাও নেই। ইফতার বিক্রি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শহরের ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়েছেন। আয়-রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নগরীর এসব ব্যবসায়ীরা মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। এমন পরিস্থিতিতে জীবন ধারনের জন্য সরকারি-বেসরকারি ত্রাণ সহায়তা ছাড়া আর বিকল্প কিছুই তারা ভাবতে পারছেন না।

রেষ্টুরেন্ট ছাড়াও বছরের অন্য সময় যারা ফেরি করে ঝাল-মুড়ি ও ছোলা-বাদামসহ নানা খাদ্য সামগ্রী বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেন মূলত তারাই রমজান মাসে ইফতার সামগ্রী কেনা-বেচা করেন নগরীর মোড়ে মোড়ে। এবারের রমজানে করোনার প্রভাবে লকডাউন থাকায় তাদের মাথায় হাত পড়েছে। বিকল্প পথও খোঁজে পাচ্ছেন না কেউ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্থায়ী রেষ্টুরেন্ট ছাড়াও শহরের মোড়ে মোড়ে প্রায় শতাধিক অস্থায়ী ইফতারীর দোকান বসতো প্রত্যেক রমজান মাসে। এই দোকানগুলোতে শ্রমিকের কাজ করতো কয়েক হাজার লোক। এবারের করোনা প্রভাবে এসব দোকান মালিক ছাড়াও এর সাথে কাজ করা শ্রমিকেরাও এখন বেকার হয়ে পড়েছে।

নগরীর আম্বরখানার বাসিন্দা কাওছার আহমদ একজন হকার ব্যবসায়ী। যখন যে সিজন তিনি সেটার ব্যবসা করেন। প্রত্যেক রমজানেই তিনি ইফতারীর ব্যবসা করে থাকেন। ভেবেছিলেন এবারও ইফতারীর ব্যবসা করবেন, কিন্তু করতে পারছেন না বর্তমান লকডাউনের কারনে।তিনি বলেন, তার মতো যারা ইফতার সামগ্রী বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তাদের এখন চরম দুঃসময় যাচ্ছে। স্ত্রী ছেলে-মেয়ে নিয়ে তারা অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে। তাদেরকে জরুরি ভিত্তিতে সহায়তা দেওয়া প্রয়োজন।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: