বুধবার, ২৯ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

৯০ লাখ মানুষের নিউইয়র্কে ৫৭ লাখের টেস্ট সম্পন্ন




এমদাদ চৌধুরী দীপু, নিউইয়র্কঃ

প্রায় ৯০ লাখ মানুষের অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্কে টেস্ট সম্পন্ন করা হয়েছে ২৫ লাখ ৫৭হাজার মানুষের ।এর বিপরীতে ১৭ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশে টেস্ট করা হয়েছে মাত্র ৪লাখ ১১ হাজার মানুষের। পার্থক্য এখানে নয় আরো অনেক পার্থক্য এবং চাঞ্চল্যকর তথ্য রয়েছে পরিক্লপনা এবং প্রচেস্টায়।তবে এক যায়গায় পার্থক্য নেই সেটি হলো ১০০দিন পার করেছে বাংলাদেশ এবং নিউইয়র্ক।করোনা পরিস্থিতি বলা যায় নিয়ন্ত্রনে নিউইয়র্কে,উঠে গেছে লকডাউন,অর্থনীতির প্রথম ধাপ শুরু হয়েছে,ধাপে ধাপে সব খোলে দেয়া হবে নিউইয়র্কে। এদিকে ১০০দিন পর বাংলাদেশের অবস্থা নাজুক। লকডাউনের পর লকডাউন চলছে। টেস্টিং এর চিত্র চরম হতাশাজনক।উদ্বেগ উৎকন্ঠায় এখন বাংলাদেশের মানুষ,সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে হতাশা আর অসহায়ত্বেও নানা খবর।
ওয়াল্ডোমেটারের তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে করোনা শনাক্ত ৬৮ হাজারের উপরে,এদিকে নিউইয়র্কে চার লাখ । বাংলাদেশে মৃত্যু ৯৩০জন,আর নিউইয়র্কে ৩০ হাজার ৫১৬জন। সুস্থ হয়েছেন বাংলাদেশে ১৪ হাজার ৫৬০জন,এর বিপরীতে নিউইয়র্কে সুস্থ ৮৪ হাজার ৮৩৪জন। নিউইয়র্কে টেস্টিং এর হার এক দশমিক দুই ভাগ। নিউইয়র্কে প্রতিদিন টেস্টিং করা হয়েছে ২৫ হাজার ৫৭০ জনের,এর বিপরীতে বাংলাদেশে দিনে গত ১০০দিনে টেস্টিং হয়েছে প্রতিদিন ৪হাজার একশো জনের।
সময়ে সময়ে বাড়ানো হয়েছে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাস্ট্রজুড়ে টেস্টিং,চিৎকার করেছেন রাজ্য গভর্নর এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টেস্ট বৃদ্বির জন্য। টেস্টিং এর পাশাপাশি ট্রেসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে,সামাজিক দুরত্ব না মানলে জরিমানার কথা ঘোষনা করা হয়েছে,সামাজিক দুরত্ব মানা হচ্ছে কী না সেটি মনিটরিং এর জন্য আটকের ক্ষমতাসহ এ্যাম্বেসেডার নিয়োগ দেয়া হয়েছে,প্রতিদিন স্ব স্ব রাজ্যের গভর্নর এবং প্রতিটির সিটির মেয়র প্রেসবিফিং করেছেন। সাংবাদিকদের আপডেট জানিয়েছেন,দিয়েছেন প্রশ্নের জবাব।
কেন্দ্রীয় সরকার,রাজ্য সরকার,সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল বা সিডিসি,স্বাস্থ্যবিভাগ,ফেডারেল ইমার্জেন্সী ম্যানেজম্যান্ট বা ফেমা,হোয়াইট হাউজের টাস্কফোর্স,ফায়ার ডিপার্টমেন্ট,পুলিশ ডিপার্টমেন্ট,এসকল সংস্থার সমন্বিত চেস্টা এবং সহযোগীতায় বিশ্বের শীর্ষ করোনা আক্রান্ত দেশ যুক্তরাস্ট্র এবং অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্ক এখন করোনামূক্ত হওয়ার পথে।
ওয়ার্ল্ডোমেটারের তথ্যঅনুযায়ী যুক্তরাস্ট্রে এখন শনাক্ত ২০ লাখ ২৬হাজারের উপরে। মৃত্যু একলাখ ১৩ হাজার ৫৫জন। সুস্থ হয়েছেন ৭লাখ ৭৩ হাজারের উপরে। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু মাত্র ৫০০জন। নিউইয়র্কে মৃত্যু মাত্র ৫৮জন। শনাক্ত ১০০০জন। তবে কিছু অঙ্গরাজ্যে বেড়েছে শনাক্ত হওয়ার সংখ্যা। এমনকি চলমান আন্দোলনে অংশগ্রহনকারীরাও শনাক্ত হচ্ছেন এমন খবর পাওয়া গেছে। গত ২৪ ঘন্টায় শনাক্ত ১৯ হাজার প্রায় ।তবে একদিনে সুস্থ হয়েছেন প্রায় ১২ হাজার। আগামী শুক্রবারে জ্যাকসনহাইটসে বাংলাদেশীদের উদ্যোগে টেস্টিং অনুস্টিত হবে, এর ব্রæকলীনে আয়োজিত টেস্টিং ক্যাম্পে ৪শতাধিক বাংলাদেশী অংশ নেন।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: