বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

একজন শিক্ষা বান্ধব জনদরদী মানুষ মোঃ আব্দুল মালিক




মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম

দক্ষিণ সুরমা উপজেলার ঐতিহ্যবাহী একটি ইউনিয়ন সিলাম। যুগ যুগ ধরে এ ইউনিয়নের মাটি ক্ষণজন্মা মানুষের জন্ম দিয়ে আসছে । এমনি এক মহান ক্ষণজন্মা মানুষ ছিলেন সিলাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট সালিশ ব্যক্তিত্ব প্রয়াত মোঃ নছির মিয়া। তিনি মারা যাওয়ার দীর্ঘদিন পেড়িয়ে গেলেও আজো তাঁকে মানূষ শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে।

প্রয়াত মো: নছির মিয়ার সুযোগ্য পুত্র সিলাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মালিক। পিতার আদর্শে অণুপ্রাণিত হয়ে তিনিও মানুষের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন। তিনি সিলাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পূর্বেই তাঁর মানবিক গুণাবলি ও প্রঞ্জার গুণে সিলাম তথা দক্ষিণ সুরমা এমন কী আশপাশের উপজেলার মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নেন।

মোঃ আব্দুর মালিক সিলাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবার পর এ ইউনিয়নে আমূল পরিবর্তন আসে । তাঁর কর্ম দক্ষতার ফলে সিলামের যেমন উন্নয়ন হয়েছে, তেমনি আশপাশ এলাকায় এই ইউনিয়নের সুনামও ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবার পর প্রথমেই উদ্যোগ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের ভূমি জটিলতা দুর করে এক সুদৃশ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ করেন।

তাছাড়া, মোঃ আব্দুল মালিকের প্রচেষ্টায় ও তৎকালিন বিওনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে তিনি চেয়ারম্যান থাকাবস্তায় সিলাম ইউনিয়নে টিএন্ডটি সংযোগ স্থাপন করা হয়।

পূর্ব সিলাম এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে তাঁর প্রচেষ্টায় বৈরাগী বাজার অটোরিকসা ষ্টেন্ড স্থাপন করা হয়। এতে করে ওই এলাকার বিপুল সংখক মানুষ দীর্ঘ পথ পায়ে হাঁটা থেকে রক্ষা পান।

মোঃ আব্দুল মালিক শুধু চেয়ারম্যান থাকাবস্থায়ই যে মানুষের সেবা করেছেনে তা কিন্তু নয়, তিনি সব সময়ই মানুষের সেবা করে চলেছেনে। তিনি বৈরাগী বাজার অটোরিকসা ষ্টেন্ডের ন্যায় নর্থ ইষ্ট মেডিকেলের রোগীদের যানবাহন সমস্যা সমাধানে সেখানে একটি ষ্টেন্ড স্থাপন করেন।

মোঃ আব্দুল মালিক চেয়ারম্যান হবার অনেক আগেও দক্ষিণ সুরমা কলেজ প্রতিষ্টায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন । দক্ষিণ সুরমা কলেজ প্রতিষ্টায় সেই সময় বিশিষ্ট শালিস ব্যক্তিত্ব মোঃ হামিদ মিয়া, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের সাবকে ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন, মোল্লারগাও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজি মোঃ মখন মিয়া , তেতলি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ ময়নুল ইসলাম প্রমুখ মোঃ আব্দুল মালিকের সাথে ছিলেন।

শুধু দক্ষিণ সুরমা কলেজ নয় মোঃ আব্দুল মালিক সিলাম বাদশাহি টিলায় অবস্থিত হযরত শাহ তৈয়ব ছয়লানি (র.) প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্টা করেন।

মোঃ আব্দুল মালিক, বিশিষ্ট শালিস ব্যক্তিত্ব মোদাব্বির হোসেন, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ তালাত আজিজ, সাংবাদিক এম. আহমদ আলী, সিরাজ মিয়া মিলে সিলামের আরেক কৃতি সন্তান শহিদ বুদ্ধিজীবি ড. মুক্তাদিরের স্মৃতি ধরে রাখতে প্রতিষ্টা করেন শহিদ বুদ্ধিজীবি ড. মুক্তাদির একাডেমি।

মোঃ আব্দুর মালিক চেয়ারম্যান থাকাবস্থায় ইউনিয়নের দ্ররিদ্র মানুষের বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে সিলাম ইউনিয়ন সমাজ কল্যাণ সমিতি ইউকের অর্থায়নে প্রায় আড়াইশ টিউবওয়েল বিতরণ করেন।

মোঃ আব্দুল মালিক চেয়ারম্যান সিলাম পিএল বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন প্রায় ষোল বছর । সে সময় বিদ্যালয়ের ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। তিনি বিদ্যালয়ে একটি দাতা ট্রাষ্টি বোর্ড গঠন করেন। তার সময়কালেই সিলাম পিএল বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় শ্রেষ্ট বিদ্যালয়ের সম্মান পায়।

মোঃ আব্দুল মালিক সিলেট সুলতানপুর সড়কের নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। যা দক্ষিণ সুরমা ও বালাগঞ্জ উপজেলা ( সিলাম, জালালপুর, দেওয়ান বাজার, পুর্ব গৌরিপুর ও পশ্চিম গৌরিপুর ইউনিয়ন) নিয়ে গঠিত।

সব মিলিয়ে মোঃ আব্দুল মালিক একজন শিক্ষা বান্ধব জনদরদী মানুষ হিসেবে আছেন সকল মানুষের হৃদয়ে। আমরা তাঁর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করি।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: