শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পাকা আমে রূপচর্চা




আম খাওয়ার পাশাপাশি ত্বকের যত্নেও ব্যবহার করতে পারেন। কারণ আম শুধু পুষ্টিগুণেই অনন্য নয়, ত্বকের চর্চাতেও অতুলনীয়। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, ত্বকের ঔজ্জ্বল্য ধরে রাখতে এবং বার্ধক্যের ছাপ দূর করতে আমের রস বেশ কার্যকর। আমের মধ্যে আছে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, কপার, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদি। ঘরোয়া রূপচর্চায় আম কতটা উপকারি জেনে নিন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে পাকা আম বেশ উপকারী। ১ চামচ আমের পাল্প, ২ চামচ ময়দা, ১ চামচ মধু দিয়ে একটি প্যাক বানিয়ে পুরো মুখের মধ্যে লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ব্রণ থেকে সুরক্ষা দেয় আম। ১ চামচ আমের পাল্প, ২ চামচ টক দই ও ২ চামচ মধু দিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিবেন।
অনেক সময়ে আমাদের যত্নের অভাবে ত্বকের মধ্যে ধুলা-ময়লা জমতে থাকে এবং মুখের মধ্যে মৃত কোষগুলো থেকে যায়। এ ক্ষেত্রে ত্বকের যত্ন নিতে আমের পাল্পের মধ্যে ১ চামচ মধু, ১ চামচ দুধ মিশিয়ে একটি স্ক্র্যাবার বানিয়ে নিন। মুখে ১০ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিবেন।
আমের ফেসপ্যাক কিন্তু ট্যান তুলতে দারুণ কাজ দেয়। ১ চামচ আমের পাল্পের সঙ্গে ২ চামচ বেসন, ১ চামচ মধু মিশিয়ে একটি প্যাক বানিয়ে নিবেন। অন্তত ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

যদি নরম ও কোমল ত্বক রাখতে চান তা হলে ২ চামচ আমের পাল্প, ১ চামচ ওটস, ২ চামচ দুধ মিশিয়ে স্ক্র্যাবার বানিয়ে নিন। এরপর ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর স্ক্র্যাবারটি শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।
শুধু পাকা আম চটকে নিয়ে মুখে লাগান। এটি ত্বকে অ্যান্টি অক্সিডেন্টের কাজ করে, যা মুখে বার্ধক্যের ছাপ পড়তে দেয় না। এটি ত্বকের লাবণ্যতা ধরে রাখে এবং ত্বক হয় আরও প্রাণবন্ত।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: