বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরাসি চিত্র প্রদর্শনীতে বাংলাদেশি শিল্পী রাজীব পলের ‘সাধু’ চিত্রকর্ম প্রদর্শিত




শাবুল আহমেদ, প্যারিস (ফ্রান্স) :

শিল্প-সাহিত্য, সংস্কৃতির তীর্থভূমিখ্যাত ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে আন্তর্জাতিক চিত্র প্রদর্শনীতে বাংলাদেশি চিত্রশিল্পী রাজীব পলের ‘সাধু’ বিষয়ক চিত্রকর্ম প্রদর্শিত হয়েছে।
গত ১৪-১৮ ফেব্রুয়ারি প্যারিসে জোফ্রে শহরের গ্র্যান্ড প্যালাইস এফেমের ‘ক্যাপিটাল আর্ট’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীতে এ চিত্রকর্ম প্রদর্শিত হয়।
৫ দিনব্যাপি অনুষ্ঠিত এ প্রদর্শনীতে বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের পাশাপাশি বাংলাদেশি শিল্পীর চিত্রকর্ম স্থান পাওয়ায় প্রবাসীরাও বেশ উচ্ছ্বসিত। ইতিমধ্যে ফ্রান্সের নরমোন্দি শহরে রাজীব পলের একাধিক একক এক্সিবিশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।


রবিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত চিত্রপ্রদর্শনী দেখতে এসে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফরাসি নাগরিক প্রফেসর নয়ন এনকে বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিল্পীদের আঁকা ছবির পাশে আমাদের বাংলাদেশি একজন শিল্পীর ছবির স্থান পেয়েছে দেখে আমি মুগ্ধ হয়েছি। নিঃসন্দেহে একজন বাংলাদেশি হিসেবে এই সুসংবাদ আমাদের জন্য অনেক আনন্দ এবং গর্বের বিষয়।
রাজীব পলের সৃজনশীল চিন্তাকে শুভ কামনা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ফ্রান্সে পূর্বের তুলনায় ধীরে ধীরে ডাক্তার, ইন্জিনিয়ার, আইনজীবী ও আর্টিস্টসহ বিভিন্ন শাখায় বাংলাদেশিরা নিজেদের মেলে ধরছেন। আমরা চাই- সবখানে যেন বাংলাদেশিদের এই বিচরণ আর সুদৃঢ় ও প্রসার হোক। এক্ষেত্রে আমাদের সলিডারিটিতে আজি ফ্রান্স (সাফ)’র পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা থাকবে।’
শিল্পী রাজীব পল বলেন, ‘চিত্র প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উপস্থাপন করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত। আশা করি- আগামীতে আর্টের সঙ্গে রিলেটেড নতুন প্রজন্মের যারা আসবে তাদের হয়তো অনুপ্রাণিত করবে।’


জল রঙের ‘সাধু’ বিষয়ক চিত্রকর্ম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মূলতঃ সাধু অনেক ধরণের থাকেন। যেমন কিছু সাধু আছেন স্পিচিয়েল, কিছু সাধু আছেন ধর্মের সাথে রিলেটেড, আবার লালন টাইপের এক ধরণের সাধু রয়েছেন। ইন্ডিয়াতে আমরা দেখি যেগুলো রিলিজিয়ন। আমার এই সাধু হচ্ছে এটা এমন একটা ব্যক্তিত্ব, যেটা আসলে এক্সিট করে না। এটা আমি নিজেই ক্রিয়েট করলাম। এই সাধুদের উচ্চ আকাঙ্খা নেই, লোকজন যখন খাবার দেয় তখব তারা খায় এই টাইপের। এদের একটা স্পিচিয়েল ধারণা আছে ‘খাঁচার ভেতর অচিন পাখি’ আমরা যে গানটা শুনি। অচিন পাখি হচ্ছে মেটাফর, যেটা আমাদের ভেতর ঢুকে যা অনেক সময় আমরা কন্ট্রোল করতে পারি না। এজন্য আমার পেইন্টিংয়ে মাঝেমধ্যে একটা পাখি থাকে যেটা মেটাফোর ইউজ করি।’

প্রসঙ্গত, খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী রাজীব পল প্রায় ১০ বছর ধরে ফ্রান্সে বসবাস করছেন।
তিনি ফ্রান্সের university École des beaux-arts থেকে মাস্টার্স ডিগ্রী সম্পন্ন করে পুরোদমে শিল্পচর্চায় নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন।
মেধাবি এই শিল্পী বহুবছর ধরে শিল্পচর্চা করে যাচ্ছেন। তিনি দেশে থাকাকালীন ২০০৫ সনে চারুকলা অনুষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘অংকন ও চিত্রায়ন’ বিভাগে বিএফএ সম্মান কোর্সে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্তিতে ডীনস্ এ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হন। রাজীব পল ইতোমধ্যে দেশ এবং দেশের বাহিরে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন চিত্র প্রদর্শনীতে অংশ নিয়ে বেশ কিছু সম্মাননা অর্জন করেছেন।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: