শনিবার, ২ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

Sex Cams

চীনে উইঘুর মুসলমানদের বন্দি শিবিরের ভয়াবহ নির্যাতনের তথ্য ফাঁস




ডেস্ক রিপোর্ট:

চীনের শিনজিয়াংয়ে উইঘুর মুসলিমদের জোর করে কথিত ‘সংশোধন কেন্দ্র’ বা বন্দি শিবিরে আটকে রাখার ভয়াবহ তথ্য ফাস হয়েছে।

হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে পুলিশের কম্পিউটারে থাকা ছবি বিভিন্ন গোপন নথি ফাঁস করেছে হ্যাকাররা।

এই তথ্য ভান্ডারটি শিনজিয়াং পুলিশ ফাইল নামে প্রকাশ হয়েছে। এটি প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি। ফাঁসকৃত নথিগুলো ২০১৮ সালের।

হ্যাকাররা তথ্যগুলো গোপনে হাতিয়ে তুলে দেয় যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকারকর্মী ড. আদ্রিয়ান জেনজের কাছে। তিনি এ তথ্যগুলো এ বছরের শুরুতে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর কাছে পৌঁছে দেন।

হ্যাকাররা যেসব তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে তার মধ্যে রয়েছে কয়েক হাজার বন্দির ছবি এবং কেউ যদি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তাকে গুলি করে হত্যার নির্দেশের নথি।

চীনের বর্তমান শাসক কমিউনিস্ট পার্টির বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে তারা প্রায় ১০ লাখ উইঘুরকে ও অন্যান্য মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের জোর করে আটক করে বন্দি করে।

পশ্চিমা দেশগুলো এটিগে উইঘুর গণহত্যা হিসেবে অভিহিত করেছে।

তারা দাবি করেছে, চীন উইঘুর মুসলিমদের গণহারে আটক করেছে, জোর করে শ্রম দিতে বাধ্য করেছে। তাছাড়া উইঘুরদের নির্বীজন করে দেওয়া হয়েছে যেন তারা জনসংখ্যা বৃদ্ধি করতে না পারে। তাছাড়া উইঘুরদের সাংস্কৃতি ঐতিহ্য ধ্বংস করে দিয়েছে।

চীন সরকার দাবি করে যে শিনজিয়াং জুড়ে ২০১৭ সালে এই সংশোধন কেন্দ্রগুলো তৈরি করা হয় এবং তাদের বক্তব্য অনুযায়ী এগুলো নিছকই স্কুল।

কিন্তু হ্যাক করা দলিলে অভ্যন্তরীণ পুলিশ বাহিনীর প্রতি নির্দেশ, রক্ষীদের ডিউটির সময় এবং বন্দীদের অবস্থার যেসব ছবি প্রথমবারের মত সামনে এসেছে তাতে এগুলোকে নিছক স্কুল বলা চলে না।

কারণ সেখানে বন্দিকৃতদের অত্যাধিক প্রহরায় রাখা হওয়ার তথ্য সামনে এসেছে।

সূত্র: বিবিসি

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: