বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কবিতার জলরঙ’ কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠান




কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কবিতা জীবনবোধের প্রচ্ছন্ন আলোয় শানিত হয়েছে। জীবনের জন্য শিল্পের যে প্রাসঙ্গিকতা, তা তাঁর কবিতায় মূর্ত হয়ে ওঠেছে। অন্তর্দৃষ্টিসম্পন্ন চেতনা তাঁর কবিতাকে করেছে গতিসঞ্চারী এবং মনোমুগ্ধকর। নানামাত্রিক চিন্তাবিশ্লেষণ হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কবিতাকে ব্যতিক্রমী যোজনায় অভিষিক্ত করেছে।

সিলেটের সৃজনশীল প্রকাশনা সংস্থা ‘পাণ্ডুলিপি প্রকাশন’-এর উদ্যোগে কবি, আবৃত্তিশিল্পী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র ‘কবিতার জলরঙ’ কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। পাণ্ডুলিপি প্রকাশন-এর স্বত্বাধিকারী লেখক, প্রকাশক ও সংগঠক বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সলের সভাপতিত্বে (৯ জুন ২০২২ খ্রি.) বৃহস্পতিবার সিলেট নগরীর পূর্ব জিন্দাবাজারস্থ হোটেল গোল্ডেন সিটির কনফারেন্স হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও কবি অধ্যক্ষ কালাম আজাদ, সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে. কর্নেল সৈয়দ আলী আহমদ (অব.), সিলেটের বর্ষীয়ান সাংবাদিক ও কলামিস্ট বৃক্ষপ্রেমিক আফতাব চৌধুরী, সিনিয়র সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক মুহাম্মদ ফয়জুর রহমান, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও কবি সালেহ আহমদ খসরু।

কবি ও শিক্ষক সেনোয়ারা আক্তার চিনু’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক ও গল্পকার তাসলিমা খানম বীথি। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও সমাজসেবী মঞ্জুর রেজা চৌধুরী, সচেতন নাগরিক কমিটি, সিলেট-এর সভাপতি সমিক সহিদ জাহান, শিক্ষক ও সাংস্কৃতিক কর্মী পুলক রঞ্জন চৌধুরী, শিক্ষক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বিজন কান্তি রায়, কবি রাহনুমা শাব্বীর চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে লেখক, প্রকাশক ও সংগঠক বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সল লিখিত মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যাংকার ও সমাজকর্মী রুমানা নাসরিন চৌধুরী শিউলি। কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কাব্যগ্রন্থ ‘কবিতার জলরঙ’ থেকে কবিতা আবৃত্তি করেন কবি ও গল্পকার পপি রশীদ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জেইন বসরী।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও কবি অধ্যক্ষ কালাম আজাদ বলেন, হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র চিন্তায় বহুমাত্রিক যোজনা বিদ্যমান। শব্দের বিন্যাস কিংবা ছন্দের মোলায়েম ভাব তাঁর কবিতাকে অনন্যমাত্রায় শোভিত করেছে। জীবন ও জগতের যে বোধ, তা তাঁর কবিতায় নতুনভাবে জীবন্ত হয়ে ওঠেছে।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. নজরুল হক চৌধুরী বলেন, কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র স্বদেশপ্রীতি গভীর অনুভূতিপ্রবণ মনের পরিচায়ক। তা তাঁর কবিতায় প্রতিফলিত হয়েছে। মাতৃভূমিকে যেভাবে তিনি হৃদয়ে ধারণ করেন, কবিতায় তাঁর চিত্র আঁকেন মনের মাধুরী মিশিয়ে। উপমা, উৎপ্রেক্ষা এবং অনুপ্রাসে তিনি স্বভূমিকে আঁকেন গভীর প্রয়াসে।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লে. কর্নেল সৈয়দ আলী আহমদ (অব.) বলেন, কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কবিতা আত্মোপলব্ধি এবং নৈতিক চেতনাকে জাগিয়ে তুলে। যা তাঁর কবিতার অনন্য বিশেষত্ব। বিশ্বাস এবং সৌন্দর্য তাঁর কবিতার দুটি প্রধান বাহন। এর উপর ভর করেই তিনি নির্মাণ করেছেন কবিতার স্বতন্ত্র জগত।

সিলেটের বর্ষীয়ান সাংবাদিক ও কলামিস্ট বৃক্ষপ্রেমিক আফতাব চৌধুরী বলেন, হোসনে আরা বেগম (ডলি) ইতিহাস এবং ঐতিহ্যকে লালন করেন সযতনে। কবিতায় এর প্রচ্ছন্ন আলো ঠিকরে পড়েছে। শেকড় এবং স্বকীয়তাকে রূপক ভঙ্গিতে তুলে ধরেছেন, যা তার কবিতার গ্রহণযোগ্যতাকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। তাঁর কবিতাও সাহিত্যে পঠিত হবে।

সিনিয়র সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক মুহাম্মদ ফয়জুর রহমান বলেন, কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কবিতায় আধ্যাত্মবাদের একটি মূর্ত ধ্বনি লক্ষ করা যায়। জীবন ও জগতের নশ্বরতার যে উপলব্ধি–তাকে তিনি অত্যন্ত শৈল্পিকভাবে তুলে ধরেছেন। আত্মোপলব্ধির যে সারনির্যাস তাঁর কবিতায় বিদ্যমান–তা যেকোনো পাঠককেই ভাবিয়ে তুলবে।

বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও কবি সালেহ আহমদ খসরু বলেন, কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র কাব্যগ্রন্থ ‘কবিতার জলরঙ’-এ স্বজাত্যবোধ, প্রকৃতিচেতনা, প্রাকৃতিক উপকরণ ও নৈসর্গিক প্রতিচ্ছবি, প্রেম-মমতা-অনুভূতি, জন্মভূমির টান, ধর্মচিন্তাসহ নানাবিধ বিষয় ফুটে উঠেছে।

অনুভূতি প্রকাশ করে কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি)’র পুত্র মোঃ হাসান বসরী বাপ্পি বলেন, আমার মা কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি) একজন সৃজনশীল নারী। পরম মমতা, স্নেহ এবং ভালোবাসার মধ্যে আমাদেরকে রেখে যেভাবে তিনি সাহিত্যচর্চা করছেন, তাতে আমরা সত্যিই অভিভূত। সামগ্রিক ভাবনায়–সাহিত্যচর্চায়ই যেন তাঁর স্বতন্ত্র জগত। পরম ভালোবাসায় তিনি যে সৃষ্টিশীলতাকে লালন করছেন–তা আমাদেরকে দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করছে। আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে যারা এ আয়োজনকে সার্থক ও সাফল্যমণ্ডিত করছেন, তাদের সবাইকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

সভাপতির বক্তব্যে পাণ্ডুলিপি প্রকাশনের স্বত্বাধিকারী বায়েজীদ মাহমুদ ফয়সল বলেন, কবি হোসনে আরা বেগম (ডলি) ছাত্রজীবন থেকেই সাহিত্যচর্চা করছেন। তবে এটিই তাঁর প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ। এ গ্রন্থের মাধ্যমে তাঁর সৃষ্টিশীলতা একটি সম্ভাবনায় রূপ নিল। তাঁর সাহিত্যচর্চার যে গতিধারা–তাতে তিনি কবিতা চর্চায় একটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারবেন বলে আমি আশাবাদী। তাঁর সাহিত্যচর্চা আরো বেগবান হোক–এই কামনাই করি।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: