মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভিডিও সম্পাদনা বা এডিটং, ইউটিউবিং, ফ্রীল্যানসিং : প্রাথমিক ধারণা




কাওছার আদিল চৌধুরী 

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তির সাথে পরিচিত থাকা সব পেশার মানুষের জন্য জরুরি ; সে হোক ইউটুবার , বা ছাত্র , শিক্ষক ,চাকুরীজীবি , বা সাংবাদিক।
তথ্য প্রযুক্তির এরকম একটি শাখা হলো ভিডিও এডিটিং বা সম্পাদনা ।   ডিজিটাল যুগে ভিডিও সম্পাদনার জনপ্রিয়তা ব্যাপকভাবে বেড়েছে। এটি সর্বত্র বিষয়বস্তু নির্মাতাদের জন্য একটি অপরিহার্য দক্ষতা হয়ে উঠেছে।
এই  লেখনীতে  ভিডিও এডিটিং আয়ত্ত করার জন্য আপনার যা যা জানা দরকার তা আমরা কিছুটা প্রাথমিক  আলোচনা  করব। পুরো আলোচনা সম্ভব নয় , কারণ তা লেখতে হলে একটি বই হয়ে যাবে।
কেনো এডিটিং শিখবেন –to just simply edit video for upload facebook , -to create youtube videos ,to become freelancer video editor
, to run video editing shop ইউটুবে ফেসবুকে ভিডিও তৈরির জন্য , বা ফ্রীল্যানসিং ভিডিও এডিটর হওয়ার জন্য , বা ভিডিও এডিটিং এর দোকান পরিচালনার জন্য যেমন বিবাহ বা অনুষ্ঠানের ভিডিও এডিং করা।
উল্লেখ্য ভিডিও এডিটিং ফ্রেল্যাংসিং এর ও একটি সাব্জেক্ট বা সেগমেন্ট।  বর্তমানে ফ্রীল্যান্সিংও একটি পেশা। এর অনেকগুলো শাখা বা উপশাখা আছে ; some subject/segment of freelancing
-digital marketing   -web development   -grafic design    -video editing   -working with excel   -affiliate marketing   -social media marketing  -search engine marketing   -search engine optimazation seo
ad expert- tiktok, facebook ,  -subsegment –  -and others।  এসবের যেকোনোটি ৬ মাস ,১ বছর , ২ বছর  শিখে আপনিও ফ্রীলান্সার হতে পারেন ; কাজের জন্য আবেদন করতে পারেনএসব সাইট গুলুতে -upwork, fiverr, freelancer.
ভিডিও এডিটিং আপনি মোবাইলে শিখতে পারেন ,তবে কম্পিউটার বেস্ট। মোবাইলে শুধু বিগিনার লেভেলের কাজগুলো করা যায়।  আপনি মোবাইল এ capcut বা kinemaster দিয়ে শুরু করতে পারেন , পরবর্তীতে কম্পিউটারে যেতে পারেন। কম্পিউটারে মিডিয়াম/বিগিনার  লেভেলের জন্য filmora ৯ ভালো। এর বিকল্প হিসেবে আছে কামতাসিয়া ,ক্যাপকাট  ফর পিসি। আর অ্যাডভান্স লেভেলে আছে এডোবি প্রিমিয়ার প্রো।


আর মোর অ্যাডভান্স লেভেলে আছে এডোবি আফটার এফেক্টস , দাভিন্সি , ফাইনাল কাটো প্রো সহ অন্যানো ;এগুলো ফ্রীল্যান্সার ভিডিও এডিটরদের জন্য।
এখন, আসুন আমরা আজকে যে সফ্টওয়্যারটির উপর ফোকাস করছি সে সম্পর্কে কথা বলি।  নতুনদের জন্য এই ধাপে ধাপে টিউটোরিয়ালটিতে, আপনি শিখবেন কীভাবে একজন পেশাদারের মতো ফিলমোরা ভিডিও এডিটিং সফ্টওয়্যারকে আয়ত্ত করতে হয়। আপনি সম্পাদনার ক্ষেত্রে নতুন বা আপনার দক্ষতা বাড়াতে চাইছেন না কেন, আপনাকে সহজে অনুসরণযোগ্য নির্দেশাবলী সহ প্রক্রিয়াটির মাধ্যমে গাইড করবে৷ মৌলিক সম্পাদনা কৌশল থেকে উন্নত বৈশিষ্ট্য পর্যন্ত, আপনি কিছুক্ষণের মধ্যেই পেশাদার চেহারার ভিডিও তৈরি করবেন।
আপনারা যারা এখানে নতুন তাদের জন্য, ফিলমোরা একটি অবিশ্বাস্য ভিডিও এডিটিং সফ্টওয়্যার যা এর ব্যবহারকারী-বান্ধব ইন্টারফেসের জন্য পরিচিত। এটি নতুনদের জন্য উপযুক্ত যারা সবেমাত্র তাদের সম্পাদনার যাত্রা শুরু করছেন।এখন, আমি আপনাকে ফিলমোরার সাথে পরিচয় করিয়ে দিই – একটি ব্যবহারকারী-বান্ধব অথচ পেশাদার সম্পাদনা সফ্টওয়্যার যা নতুন এবং বিশেষজ্ঞরা একইভাবে পছন্দ করে।
ভিডিও এডিটিং এর কি করা হয় – video import , aspect ratio -project setting , trim/cut/split , remove any middle part, which is unwanted, or if you do any mistake you want to remove , split video , merge clips , add text /add subject for reels short ,transitins & effects  , color gradiation, filter adjust, contrast, situration, sharpness , adjust speed , green scren/change video background , adding background music , audio editing , using/add lower thirds , using subscribe animation , filter  , fonts & text animation ,scrolling text
and other things.
ভিডিও এডিটিং এর শুরুতে আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনি কোন প্লাটফর্মের জন্য ভিডিও তৈরী করতে চান। একেকটির জন্য আসপেক্ট রেশিও আলাদা। ইউটিউব লং ভিডিওর জন্য ১৬:৯ , ফেইসবুক লং ভিডিওর জন্য ১:১ , শর্টস রিল ও টিকিটকের জন্য ৯:১৬ আসপেক্ট রাশিও।
এরপর আপনাকে বুজতে  হবে কোন ক্যাটাগরির ভিডিও বানাবেন বা এডিটিং করবেন। বিভিন্ন ধরণের ক্যাটাগরি আছে ; যেমন টেক , ট্রাভেল ব্লগ, নিউস, ডকুমেন্টারী , কুকিং , স্পোর্টস ,এন্টারটেইনমেন্ট সহ অনেক কিছু।  একেক ধরণের ভিডিওর এডিটিং একেক রকম।  এডিটিং, ট্রান্সিশন , এফেক্টস ,কালার গ্রাডিয়েশন একেক ক্যাটাগরিতে একেক রকম হয়।
চলুন ফিলমোরার প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম এবং বৈশিষ্ট্যগুলিতে ডুব দেওয়া যাক। চলুন সরাসরি প্রবেশ করি এবং আপনার মিডিয়া ফাইলগুলি আমদানি করে শুরু করি। এসব বিষয়গুলু লিখিত আকারে বুজানো সম্ভব না ;ভিডিওতে দেখাতে হবে।filmora টিউটোরিয়াল ভিডিও আগামীতে আপলোড করবো।  কিভাবে অনায়াসে টাইমলাইনে আপনার ক্লিপগুলি সাজানো যায়, আপনার ফুটেজগুলিকে সংগঠিত করা সহজ করে৷ সেখান থেকে, আমি আপনার ভিডিও নির্বিঘ্নে প্রবাহ নিশ্চিত করে কাটা এবং ছাঁটাই করার মতো মৌলিক সম্পাদনা কৌশলগুলির মাধ্যমে আপনাকে গাইড করব।আমরা টাইমলাইন এডিটিং, ইফেক্ট, ট্রানজিশন এবং অডিও এডিটিং এক্সপ্লোর করব। এগুলি হল একটি পেশাদার চেহারার ভিডিও তৈরির বিল্ডিং ব্লক৷ একবার আপনি এই বৈশিষ্ট্যগুলির হ্যাং পেয়ে গেলে, আপনি ফিলমোরার সাথে কী করতে পারেন তা দেখে আপনি অবাক হয়ে যাবেন।কালার গ্রেডিং থেকে শুরু করে মোশন ট্র্যাকিং, এমনকি অডিও এডিটিং পর্যন্ত, ফিলমোরা আপনার ভিডিওগুলিকে উন্নত করতে এবং আপনার সৃজনশীল দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রাণবন্ত করার জন্য প্রচুর সরঞ্জাম সরবরাহ করে।
ফিলমোরা সম্পাদনা সরঞ্জামগুলি ভিডিওগ্রাফারদের জন্য একটি গেম-চেঞ্জার। ফিলমোরা ব্যবহার করে, আপনি কেবল সময়ই বাঁচান না বরং আপনার ভিডিওর গুণমানও বাড়ান এবং আপনার সৃজনশীলতাকে উন্মোচন করেন যা আগে কখনও হয়নি। নিস্তেজ ভিডিওগুলিকে বিদায় বলুন এবং ফিলমোরার সাথে পেশাদার-স্তরের সম্পাদনাকে হ্যালো বলুন৷
ভিডিওর সাথে রয়েছে অডিও এডিটিং। অডিওর জন্য ভালো অডাসিটি সফটওয়্যার এছাড়া অ্যাডভান্স লেভেলে এডোবি অডিশন, এডোবি প্রিমিয়ার  প্রো রয়েছে। তাছাড়াও অডিও রেকর্ডিং ও এডিটিংয়ের কাজ মোবাইলে capcut বা kinemaster দিয়ে করতে পারেন।
মাইক্রোফোন : অডিও রেকর্ডিং একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।  ভালো সাজেস্টেড মাইক্রোফোন হচ্ছে maono au ১০০ r .online এর দাম ১০ -২০ ইউরো।
ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক  :  ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ইউটিউব এর ক্ষেত্রে ইউটিউবের ক্ষেত্রে ইউটিউব অডিও লাইব্রেরি থেকে ডাউনলোড করতে হবে ; ফেইসবুক ভিডিওর ক্ষেত্রে ফেইসবুক অডিও লাইব্রেরি থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে হবে।  অন্যস্থান থেকে ব্যবহার করলে কপিরাইট ইস্যু /ক্লেম /স্ট্রাইক আসবে।
বুস্টিং : আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা ফেইসবুক পেজ নতুন হলে সেখানে ভিডিও আপলোড করলে দর্শক বেশি হবে না। তাই আপনার ভিডিও বেশি দর্শকের নিকট পৌঁছাতে বুস্টিং করতে পারেন।  বুস্টিং হলো ইউটিউব / গুগল বা ফেসবুককে টাকা দেবেন , যাতে তারা আপনার ভিডিও বা চ্যানেল বিজ্ঞাপন আকারে দর্শকদের নিকট পৌঁছায়।

থাম্বনেইল তৈরী : থাম্বনেইল তৈরির অনেক পদ্ধতি আছে। এর মধ্যে সহজ হচ্ছে কম্পিউটরে ক্যানভা ওয়েবসাইট থেকে , বা মোবাইল এ ক্যানভা আপস দিয়ে তৈরী করা।
উপরের লেখনীতে বাংলা ইংরেজি মিক্স করে লেখা হয়েছে। করুন টেক ক্যাটাগরিতে ভিডিওতে কথা বলতে হলে এপস বা সফটওয়্যার এর  মেনু বা টুলগুলুর নাম ও অন্যানো কাজ ইংলিশে বলতে হয়।

 

লেখক : সাংবাদিক

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: