শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফ্রান্সে বাংলাদেশ উৎসবে উৎফুল্ল প্রবাসীরা




লোকমান আহম্মদ আপন, বিশেষ প্রতিনিধি:

বিপুল আনন্দ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ১৬ ও ১৭ জুলাই ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত হয়েছে দুইদিনের বাংলাদেশ উৎসব ২০২২। উৎসবে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশীর পাশাপাশি প্রচুর ফরাসী লোকজন উপস্থিত ছিলেন। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের উপকন্ঠ সেইন্ট ডেনিস এ অনুষ্ঠিত এই উৎসবের আয়োজক ছিলো Association Sequano Bangladesh (A.S.B) সহযোগিতায় ছিলো স্বরলিপি শিল্পীগোষ্ঠী ফ্রান্স। উৎসবে উপস্থিত ছিলেন সেইন্ট ডেনিস মেরির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বাঙালি কমিউনিটির বিভিন্ন শ্রেণী পেশার বিপুল সংখ্যাক মানুষ।উৎসবটি বাংলাদেশী মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল।

উৎসব উপলক্ষে আয়োজন করা হযেছিল মেলার। মেলায় বেশ কিছু বাংলাদেশি স্টল ছিলো। সেখানে বাংলার ঐতিহ্যবাহী খাবার, জামাকাপড়সহ নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের বিপুল সমাহার ছিলো। পাশাপাশি শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, খেলাধুলাসহ নানা আয়োজন ছিলো। সবচেয়ে আকর্ষনীয় ছিলো সংগীত। যেখানে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পীরা গান গেয়ে উপস্থিত দর্শকদের বিমোহিত করেন।শিল্পীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিলেন কিংবদন্তী শিল্পী পবন দাস বাউল, শিল্পী আরিফ রানা, শিল্পী মৌসুমী চক্রবর্তী, দীপক দেবনাথ, পলাশ, পাপিয়া পাল, শিউলি, সুবর্ণা প্রমুখ।


বিশেষ করে শেষ দিনের সর্বশেষ আয়োজন ছিলো কিংবদন্তী বাউলশিল্পী পবন দাস বাউল এবং আরিফ রানার পরিবেশনা। তারা উপস্থিত দর্শকদের দীর্ঘক্ষণ মাতিয়ে রাখেন বাউলিয়ানায়। পবন দাস বাউল তার বিখ্যাত গান তোমার দিল কি দয়া হয়না, দে দে পাল তুলে দে, চঞ্লও মন আমার শোনে না কথাসহ বেশ কিছু গান গেয়ে শ্রোতাদের বিমোহিত করে রাখেন।

আয়োজন প্রসঙ্গে এই প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় উৎসবের মূল আয়োজন সরফ সদিউলের সাথে। তিনি বলেন- আমার উদ্দেশ্য ছিলো বিদেশীদের মাঝে আমাদের কৃষ্টি কালচারকে তুলে ধরা, পাশাপাশি বাংলাদেশীদের একটি মিলনমেলা ঘটানো। সফলভাবে বিশাল একটি আয়োজন শেষ পরযন্ত সফলভাবে সমাপ্ত করতে পেরে আমি খুব আনন্দিত।তিনি উপস্থিত সকলের প্রতি এবং সকল সহযোগীদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। আগামীতেও এরকম আয়োজন করার আশবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: