শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পর্দা নামলো ওয়েব সামিটেরঃ এআই-কে মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করাই আগামির চ্যালেঞ্জ




 

শাহ সুহেল আহমদ, লিসবন থেকে ফিরেঃ

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই। আগামি বিশ্ব যেন এআইকে ঘিরেই। বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রযুক্ত সম্মেলন ওয়েব সামিটে এআই ছিলো আলোচনার শীর্ষে। পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে চারদিন ব্যাপী ওয়েব সামিটের সমাপ্তি ঘটলো বৃহস্পতিবার।

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করতে নানা দিক আলোচনা হয় সামিটের চারদিন জুড়ে। এতে উঠে আসে, আগামির বিশ্বের বড় চ্যালেঞ্জই হলো এআই-কে মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করা।

প্রযুক্তিখাতের বিভিন্ন বিষয়ের উপর সেমিনার, সর্বশেষ প্রযুক্তির প্রদর্শনী আর নতুন বিশ্বকে তুলে ধরাই ছিল সামিটের লক্ষ্য। এবারের সম্মেলনে ১৫৩ দেশ থেকে ৭০ হাজারেরও বেশি মানুষ অংশ নেন।

চার দিনের সামিটে বিভিন্ন সময়ে উইকিপিডিয়ার নির্মাতা জিমি ওয়েলস, আলীবাবার প্রেসিডেন্ট কিউ জ্যাং, ওয়েব সামিটের নবাগত সিইও কেতরিনা মাহের, সিগনালের প্রেসিডেন্ট মেরদিত হোয়াইকারসহ বৃহৎ কোম্পানীগুলোর প্রেসিডেন্ট এবং সিইও আলোচনায় অংশ নেন । এছাড়া পর্তুগালের অর্থনীতি ও সামুদ্রিক বিষয়ক মন্ত্রী অ্যান্তনিও কসতা সিলভা ও লিসবনের সিটি মেয়র কারলুস ময়দাস সামিটে বক্তব্য দেন।


ওয়েব সামিটকে ঘিরে পর্তুগালের রাজধানী লিসবন যেন উৎসবের নগরীতে পরিণত হয়। বিশ্বের নানা প্রান্তের শীর্ষ স্টার্টঅ্যাপ কোম্পানীগুলোর অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। আইটি খাতের বিনিয়োগকারীরাও ঘুরে ঘুরে খুঁজে বেরিয়েছেন নিজেদের লক্ষ্য নিয়ে।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে পাকিস্তানই বড় প্যাবিলয়ন নিয়ে অংশ নেয় সামিটে। ছোট্ট একটি প্যাবিলয়ন ছিল ইন্ডিয়ারও। এর বাইরে সামিটে দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশ অংশ নিতে দেখা যায় নি।

২০২৪-এ নতুন উদ্ভাবনার স্বপ্ন নিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পর্দা নামে ওয়েব সামিটের।

সম্পাদক: শাহ সুহেল আহমদ
প্যারিস ফ্রান্স থেকে প্রচারিত

সার্চ/খুঁজুন: